সোমবার, ২২শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

সিরাজগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচনার শীর্ষে রাসেল সেখ আলী

উজ্জ্বল অধিকারী: সিরাজগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে উজ্জীবিত হয়ে উঠেছে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। র্দীঘ ৭ বছর পর খুব কাছাকাছি সময়ের মধ্যে ছাত্রলীগ কমিটি গঠন হতে পারে বলে গুঞ্জন উঠেছে। সিরাজগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আলোচনার শীর্ষে রয়েছে পরিচ্ছন্ন ছাত্রনেতা, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক রাসেল সেখ আলী। সাবেক এই ছাত্র নেতাকে শীর্ষ নেতৃত্বে দেখতে চায় তৃণমূলের ছাত্রনেতা কর্মীরা।
আওয়ামী লীগ পরিবারে বেড়ে ওঠা রাসেল সেখ আলী ২০০৭ সালে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় সিরাজগঞ্জ শহরের নাজমুল চত্বরে তৎকালীন সিরাজগঞ্জ সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রলীগ নেতা মাহাবুব হোসেন রব্বানী গুলিবিদ্ধ হলে বড় ভাইদের সাথে রাজপথে আন্দোলন করেন । পরবর্তীতে ছাত্রলীগ নেতাদের বিচারের দাবিতে শহরের বিভিন্ন গুরুত্বর্পূণ স্থানে পোষ্টার লাগিয়ে সাহসী ভূমিকা পালন করেন।
তিনি সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক ও সিরাজগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য ড.জান্নাত আরা তালুকদার হেনরীর আস্থাভাজন র্কমী।
সিরাজগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি জাকিরুল ইসলাম লিমন বলেন, প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে রাসেল সেখ রাজপথে ছিল। সামনের সারির কর্মী হিসেবে সে নিবেদিত প্রাণ।সাধারণ মানুষের কাছেও সে সমধিক প্রিয়।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার গণতন্ত্রের মানস কন্যা মানবতার মা শেখ হাসিনা এমপির পক্ষ হতে মহামারী করোনা পরিস্থিতির সময় জেলার বিভিন্ন অঞ্চলে মানুষের বাড়ি-বাড়ি গিয়ে খাদ্য সামগ্রী ও নগদ অর্থ সাহায্য সহযোগিতা করেছে । বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কর্মসূচী অনুযায়ী বিভিন্ন স্থানে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করেছে ।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ২০১৮ইং উপলক্ষ্যে সিরাজগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের নির্বাচন কালীন আসন ভিত্তিক নির্বাচন পরিচালনা সমন্বয় কমিটি গঠন করা হয়। উক্ত সমন্বয় কমিটিতে রাসেল সেখ আলী সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন । সিরাজগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবদুল্লাহ বিন আহমেদ বলেন, শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে এবং প্রতিটি নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের পক্ষে রাসেল সেখ আলী অক্লান্ত পরিশ্রম করেছে।

রাসেল সেখ আলী বলেন, ‘আজকের ছাত্রলীগ দেশের সকল অনৈতিক ও অপরাজনৈতিক কর্মকাণ্ড দমন করে কাক্সিক্ষত লক্ষ্য পূরণে এগিয়ে চলেছে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের প্রশ্নে জীবনবাজি রেখে আন্দোলন-সংগ্রাম করেছি। এই অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে সিরাজগঞ্জ জেলার ছাত্র সমাজকে সাথে নিয়ে ধারাবাহিক আন্দোলন সংগ্রামের মধ্য দিয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার স্মার্ট বাংলাদেশ বাস্তবায়নে কাজ করতে চাই। ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ আমার অতীত ত্যাগ, শ্রম ও অভিজ্ঞতা মূল্যায়ণ করবেন বলে আমি মনে করি।

সংবাদের আলো বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো।

----- সংশ্লিষ্ট সংবাদ -----