শুক্রবার, ১৯শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

বেলকুচিতে বোমা বিস্ফোরণে কারিগরের মৃত্যু, অবশেষে শ্রমিক লীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

উজ্জ্বল অধিকারী: সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে বোমা বানাতে গিয়ে বিস্ফোরণে কুষ্টিয়ার ফজলু শেখ (৪৫) নিহতের ঘটনায় অবশেষে শ্রমিক লীগের সাবেক নেতা মোতালেব সরকারের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বেলকুচি থানার ওসি আনিছুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, সোমবার (২৫ ডিসেম্বর) রাতে নিহত ফজলু শেখের ভাই, ছেলে ও মেয়ের স্বামী থানায় এসেছিলেন। বোমা বিস্ফোরণ ও ফজলু শেখ নিহতের ঘটনায় তাঁর ছোট ভাই বিপুল রহমান বাদী হয়ে মামলা করেছেন। মামলায় মোতালেব সরকারের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাতনামা আরো ৩/৪জনকে আসামি করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

বেলকুচি উপজেলার সুবর্ণসাড়া গ্রামে গত ১৯ ডিসেম্বর শ্রমিক লীগ নেতা মোতালেব সরকারের বাড়িতে বোমা বানানোর সময় বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে আহত কুষ্টিয়া সদর উপজেলার মিলপাড়ার তোফাজ্জল শেখের ছেলে ফজলু শেখ (৪৫) চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ২১ ডিসেম্বর ঢাকা মেডিক্যাল হাসপাতালে মারা যান। এ ঘটনায় এনায়েতপুর থানার সৌদিয়া চাঁদপুর গ্রামের তাছের আলীর ছেলে জিন্নাহ আলী (৪৫) নামে একজন আহত হয়েছে বলে শোনা গেলেও এখনও তাঁর কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।

গত ১৯ ডিসেম্বর দুপুরে সুবর্ণসাড়া গ্রামের সরকার বাড়িতে বিকট শব্দে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। ওই সময় বাড়ির মালিক শ্রমিক লীগ নেতা মোতালেব হোসেন সরকার দাবি করেন, রাইস কুকার বিস্ফোরণে শব্দ হয়েছে। থানা পুলিশও ওই সময় দাবি করেছিল ওই বাড়িতে গিয়ে তারা কোনো বোমার আলামত পাননি। কিন্তু বিস্ফোরণে আহত ফজলু ঢাকায় হাসপাতালে মৃত্যু হলে শনিবার (২৩ ডিসেম্বর) ঘটনার রহস্য বেড়িয়ে আসে।

ঘটনাস্থল পরিদর্শনের পর সিআইডি দলের নেতৃত্ব দেওয়া পরিদর্শক মোহাইমিনুল সরকার সাংবাদিকদের জানান, ঘটনার পর সিরাজগঞ্জ সিআইডির দুটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে কিছু আলামত সংগ্রহ করেছে। ঘটনার পরপরই এর অধিকাংশ আলামত নষ্ট করে ফেলা হয়েছে। বিস্ফোরণে ক্ষতিগ্রস্ত টাইলস বাড়ির পাশের খালে ফেলে দেওয়া হয়েছে। মেঝেতে নতুন টাইলস বসানো হয়েছে। দেয়ালে রং করা হয়েছে।

সংবাদের আলো বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো।

----- সংশ্লিষ্ট সংবাদ -----