মঙ্গলবার, ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

বেলকুচিতে দোয়াত কলমের নির্বাচনী অফিস ভাংচুর

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি: সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দেয়াত-কলম প্রতিকের প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার আমিনুল ইসলামের নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুর ও তার কর্মী-সমর্থকদের উপর হামলা ও মারপিট করেছে প্রতিপক্ষ মোটরসাইকেল প্রতিকের প্রার্থী বদিউজ্জামান ফকিরে সমর্থকরা। রোববার রাত ১০ টার দিকে উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের আজগড়া জামতৈল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। হামলায় আহত কর্মী-সমর্থকেরা চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এছাড়া সংশ্লিষ্ট থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।

লিখিত অভিযোগ থেকে জানাযায়, আসন্ন বেলকুচি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বেলকুচি উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সদস্য, টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিপি ইঞ্জিনিয়ার আমিনুল ইসলামের এলাকা ভিত্তিক নির্বাচন পরিচালনার জন্য দৌলতপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের সেকান্দার মার্কেটে অফিস স্থাপন করা হয়। সেখানে তার সমর্থকরা বসে ভোটের আলোচনা করছিল। এমন সময়ে প্রতিপক্ষ মোটরসাইকেলের প্রার্থী হাজি বদিউজ্জামান ফকিরের সমর্থকরা স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি সেকান্দার আলী ও মাসুদ আলী, আশরাফুল ইসলামের উপর হামলা ও মারপিট করে।

এসময় তারা অফিসের চেয়ার-টেবিল ভাঙচুর করে চলে যায়। পরে আহত সেকান্দার আলী ও মাসুদ আলী, আশরাফুল ইসলামকে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। এর কিছু সময় পরেই আজগড়া ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলমের বাড়িতে হামলা চালায় বলে অভিযোগ করেন। এসময় জাহাঙ্গীরকে বাড়িতে না পেয়ে ছোট বোন রুপসী খাতুনকে মারপিট করে। একই সময় রুপসীর প্রতিবন্ধী স্বামী চা দোকানি রমজান আলীকে বেধরক মারপিট করে।

এঘটনায় এলাকায় নিন্দার ঝড় বইছে। জামতৈল ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি সেকান্দার আলী বলেন, বদি ফকির পরাজয় নিশ্চিত জেনে ক্ষীপ্ত হয়েছে। তার প্রতিপক্ষের সমর্থকদের উপর হামলা, ভাংচুর ও ভয়ভীতি দেখিয়ে নির্বাচনী পরিবেশ বিনষ্টের চেষ্টা করছে। দ্রুত আইনী ব্যবস্থা গ্রহন করার দাবি জানাই। আজগড়া ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম জানান, এলাকার মানুষ নির্বাচনে উচিত জবাব দেবে। তাই বদি ফকির পরাজয় বুঝতে পেরে দেয়াত কলমের কর্মীদের মারপিট শুরু করেছে। আমাকে বাড়িতে না পেয়ে বোন ও ভগ্নিপতিকে মারপিট ও ভাঙচুর করেছে।

এঘটনায় দোষীদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানাই। এবিষয়ে প্রার্থী বদিউজ্জামান ফকির বলেন, আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা বানোয়াট অভিযোগ করা হচ্ছে। আজগড়া জামতৈল ঐ অফিসে আমিরুল ইসলামের সমর্থকরা টাকা ভাগা ভাগি নিয়ে নিজেদের মধ্যে মারামারি করে ভাংচুর করেছে। এখানে আমার সমর্থকদের বিরুদ্ধে মিথ্যে অভিযোগ এনে নানা ভাবে প্রচারনা করছে। বেলকুচি থানার অফিসার ইনচার্জ আনিসুর রহমান বলেন, রাতে আজগড়াতে একটি নির্বাচনী অফিস ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। আমি জানা মাত্র সেখানে পুলিশ পাঠিয়েছি। একটি অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদের আলো বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো।

----- সংশ্লিষ্ট সংবাদ -----

এই সপ্তাহের পাঠকপ্রিয়