বুধবার, ২৪শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

পাবনায় ঝাড়ুদার দিয়ে প্রসব করানোর অভিযোগ, নবজাতকের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক: পাবনার ঈশ্বরদীতে জমজম স্পেশালাইজড হাসপাতালে জিমু খাতুন (১৮) নামে এক প্রসূতিকে ঝাড়ুদার দিয়ে প্রসব করানোর অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ওই নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে বলেও জানা যায়। শুক্রবার (০৭ জুন’) মধ্যরাতে এ ঘটনা ঘটে। প্রসূতি জিমু নাটোরের লালপুর উপজেলার মাঝগ্রামের সাইদুর রহমানের স্ত্রী। অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছে পুলিশ। প্রসূতির স্বামী সাইদুর রহমান জানান,আমার গর্ভবতী স্ত্রীকে গত ৬ জুন জমজম হাসপাতালে এনে ডাঃ নাফিসা কবীরকে দেখানো হয়। তিনি ইসিজি,আলট্রাসনোগ্রামসহ প্রয়োজনীয় পরীক্ষা করে জানান সব স্বাভাবিক আছে। ৭ জুন জিমুর প্রসব বেদনা শুরু হলে রাত ১ টায় জমজম হাসপাতালে ভর্তি করি।ডাঃ নাফিসা আবারও প্রয়োজনীয় পরীক্ষা নিরিক্ষা করেন এবং বলেন সব স্বাভাবিক আছে ২ ঘন্টার মধ্যে স্বাভাবিক ডেলিভারির সম্ভাবনা আছে। সাইদুর রহমান আরো জানান, এরপর ওই চিকিৎসক বাসায় চলে যান। রাত ৩টার দিকে প্রসূতির তীব্র ব্যাথা শুরু হলে তাকে ডেলিভারীর জন্য ওটিতে নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় ডাঃ নাফিসা হাসপাতালে ছিলেন না। নার্স ও ঝাড়ুদাররা ডেলীভারী করান। কিছুক্ষণ পর আমাকে বলা হয় মৃত সন্তান হয়েছে। এরপর ডাঃ নাফিসা কবীর হাসপাতালে এসে একই কথা বলেন।

এ ঘটনায় সাইদুর রহমান বাদী হয়ে শনিবার (৮ জুন) সকালে ডাঃ নাফিসা কবির, ঝাড়ুদার ও আয়া পারুল, সাথী ও রাসেলের নাম উল্লেখ করে ঈশ্বরদী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হয় হাসপাতালটির মালিক ডাঃ নাফিসা কবীরের মুঠোফোনে। তিনি দম্ভোক্তি করে বলেন, পুলিশ প্রসাশনের কাছে বক্তব্য দিয়েছি এ ব্যাপারে আর কারো সাথে কোনো কথা বলতে চাই না।’ ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘প্রসূতির স্বামীর লিখিত অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদের আলো বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো।

----- সংশ্লিষ্ট সংবাদ -----